২৪ ঘন্টা ব্রা পরার অভ্যাস আছে কি আপনার

২৪ ঘন্টা ব্রা পরার অভ্যাস আছে কি আপনার

02 Oct, 2020 • Bra

অনেকেই মনে করেন চব্বিশ ঘণ্টা ব্রা পরে থাকা তাঁদের ফিগার সুন্দর রাখতে সহায়তা করে, আবার অনেকেই বলেন যে এই অভ্যাসটি স্তন ক্যান্সারের কারণ! কিন্তু আসলে কোনটা সত্য? কিংবা কাদের ক্ষেত্রে ব্রা পরে থাকার নিয়মটি প্রযোজ্য? জেনে নিন বিস্তারিত সুবিধা, অসুবিধা ও স্বাস্থ্য ঝুঁকির কথা।

কেন এই সারাক্ষণ ব্রা পরিধান?

যারা এই সারাক্ষণ, এমনকি রাতে ঘুমাতে যাওয়ার সময়েই ব্রা পরে থাকেন তাঁরা প্রায় সকলেই মনে করেন যে এই কাজটি তাঁদের স্তনের আকৃতিকে সুন্দর রাখে। স্তনকে অনেক বয়স পর্যন্ত সুডৌল রাখে ও শেপ নষ্ট হতে দেয় না। কিন্তু আসলে কি তাই? ব্রা পরা না পরার সাথে আসলে স্তনের শেপ নষ্ট হবার সম্পর্ক খুবই অল্প, কেবল ক্ষেত্র বিশেষেই এটা হতে পারে। আর নারীদের স্তনের শেপ ক্রমশ নষ্ট হবার মূল কারণ হচ্ছে বয়স, গ্রাভিটি, সন্তান জন্মদান, বাড়তি ওজন ইত্যাদি। তাই কেবল স্তন সুন্দর রাখার জন্য সারাক্ষণ ব্রা পরে থাকা অনর্থক। তবে হ্যাঁ, অনেকেরই স্তনে ব্যথা হয় চাপ লাগবে বা ঘুমাতে অসুবিধা হয়। তাঁরা পরিধান করতে পারেন ব্রা ঘুমের সময়ে। তবে অবশ্যই টাইট ব্রা নয়, বরং ঢিলেঢালা আরামদায়ক ব্রা।

রক্ত চলাচলে সমস্যা-

যেকোনো অন্তর্বাসই আপনার শরীরের ওই অংশে রক্ত চলাচলে সমস্যা সৃষ্টি করতে পারে। টাইট অন্তর্বাস যে রক্ত সঞ্চালনে বাধা দেয়—এ কথা ডাক্তাররা সবসময়ই বলে থাকেন। ব্রাও তার ব্যাতিক্রম নয়। তাছাড়া রাতে ব্রা পড়ে থাকলে স্তনের চারপাশের পেশী ও স্নায়ুর ক্ষতি করতে পারে। ব্রেস্ট টিস্যুকেও ক্ষতিগ্রস্ত করে রাতে ব্রা পরে ঘুমানোর অভ্যাসটি।

চামড়ার রঙ পরিবর্তন-

এই অভ্যাসের ফলে অনেক সময়ই চামড়ার রঙ কালো হয়ে যায়। খুব চাপা অন্তর্বাস পরলে তা চামড়ার সঙ্গে সারাক্ষণ ঘষা খায়। ফলে তার থেকে চামড়ায় কালো ছোপ তৈরি হয়।

ঘুমের সমস্যা-

টাইট ব্রা পড়ে ঘুমালে অনেকসময়ই আমাদের আন-কমফোর্টেবল বা আন-ইজিনেস ফিল হতে পারে। যার ফলে ঘুমে নানারকম সমস্যা হয়। ঘুম ঠিক মতো হয় না। রাতের পর রাত ঘুম ঠিক মতো না হওয়া কিন্তু আপনার স্বাস্থ্যের ওপর দীর্ঘমেয়াদী প্রভাব ফেলে।

কিছু ক্ষেত্রে সারাক্ষণ ব্রা

কিছু ক্ষেত্রে সারাক্ষণ ব্রা পরার কোনো প্রয়োজন নেই। আপনার কাপ সাইজ যদি কম হয়ে থাকে, অর্থাৎ স্তন যদি আকারে ছোট হয়ে থাকে তাহলে ব্রা পরার কোনো প্রয়োজন নেই। কিন্তু অদি আপনার ব্রায়ের কাপ সাইজ হয়ে থাকে ডি বা ডি এর বেশি, অর্থাৎ যদি স্তন আকারে বড় হয়ে থাকে তাহলে ব্রা পরা আপনার জন্য ভালো।

এতে স্তন শেপ হারানোর সম্ভাবনা কমবে এবং আপনি নানান রকমের অস্বস্তিকর অবস্থা থেকে পরিত্রান পাবেন। তবে অবশ্যই টাইট ব্রা পরিধান করবেন না। এবং সিনথেটিক কাপড়ের ব্রা সারাক্ষণ পরিধান করে থাকবেন না।

ক্যান্সারের সম্ভাবনা?

হ্যাঁ। ব্রা পরে ঘুমালে স্তন ক্যান্সার হয় কিনা—তা নিয়ে নানা গবেষণা হয়ে আসছে। রাতে ব্রা পরে ঘুমালে স্তনের ক্যান্সার হবার কোনো কারণই নেই। তবে অন্যান্য নানা স্টাডি থেকে জানা গেছে রাতে ব্রা পরে ঘুমানোর অভ্যেস কিন্তু আপনার স্তন ক্যান্সারের সম্ভাবনাকে অনেকটাই বাড়িয়ে দিতে পারে। তাছাড়া স্তনে নন-ক্যান্সারাস লাম্প সিস্ট ইত্যাদি তো তৈরি হয়ই অনেকক্ষণ একটানা ব্রা পরে থাকলে।

তাই ব্রা যদি রাতে পরে ঘুমানোর অভ্যেস থাকে, তবে তা জলদি ছাড়ুন। অস্বস্তি বাড়িয়ে কি লাভ? বরং রাতে ঘুমটাই হোক ভালো করে! তাই না?

 

 

 

তথ্য: সংগৃহীত